শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:০৩ পূর্বাহ্ন

ছনুয়া ইউনিয়নে নৌকার বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী সাইফুল ইসলাম পাটোয়ারীর বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর।

 

সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টারঃ

ফেনীতে স্ব-শরীরে উপস্থিত থেকে দল বল নিয়ে বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থীর বাড়িঘরে হামলার অভিযোগ উঠেছে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বিরুদ্ধে। শুক্রবার রাতে ফেনী সদর উপজেলার ছনুয়া ইউনিয়নের মধ্যম ছনুয়া গ্রামের এ ঘটনা ঘটেছে। হামলাকারী নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী করিমুল্লাহ (রেঞ্চু করিম) ছনুয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান এবং সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন। এর আগে ফেনী সদর উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের মনোনয়ন পত্র জমা দানের শেষদিন বৃহস্পতিবার বিকালে নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে সাংবাদ সংগ্রহের সময় মাথার চুল টেলে সাংবাদিক হাসনাত তুহিন কে লাঞ্চিত করে আলোচিত- সমালোচিত হন এ চেয়ারম্যান।এই ঘটনা শেষ হতে না-হতেই করিমউল্লা’র বিপক্ষে দুই স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ায় তাদের বাড়ির ঘর ভাংচুরসহ হামলার অভিযোগ ওঠে।

সংশ্লিষ্টরা জানায়, মধ্যম ছনুয়া গ্রামে শনিবার রাত ৭ টার দিকে চেয়ারম্যান প্রার্থী যুবলীগ নেতা মোঃ সাইফুল ইসলাম পাটোয়ারী আবু’র বাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলায় স্ব-শরীরে দলবল নিয়ে উপস্থিত ছিলেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি করিমুল্লাহ। এ সময় হামলাকারীরা চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু’র ঘরের দরজা জানালা ভেঙ্গে তছনছ করে। গুলি বর্ষণ করে। এ সময় ঘরে থাকা নারী ও শিশুরা এ সময় দিগবিদিক ছুটোছুটি করতে থাকে। তবে কোন ব্যক্তি এ ঘটনায় হতাহত হননি।

অভিযোগ কারী ও চেয়ারম্যান প্রার্থী সাইফুল ইসলাম পাটোয়ারী আবু জানান, কোন উসকানী ছাড়াই বর্তমান চেয়ারম্যান ও নৌকা প্রার্থী করিম আমার বাড়ি ঘরে হামলা করেছে। একজন জন প্রতিনিধি কিভাবে প্রকাশ্যে দলবল নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর বাড়িতে হামলা করে ? তিনি এর বিচার চান। এ ছাড়াও বৃহস্পতিবার তাকে মনোনয়ন পত্র জমা দিতে নানা ভাবে করিমের লোকজন বাধা দিয়েছে বলেও অভিযোগ করেন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী এ চেয়ারম্যান প্রার্থী। পুলিশের সহযোগিতায় মনোনয়ন পত্র জমা দেন বলে জানান। এই দিকে মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার শেষ তারিখ এর দুই দিন আগেই ফেনী ফাই স্টার হোটেলের সামনে থেকে আর এক স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী কামরুল জামান শিমুলকে তিনি সহ তার দলবল উঠিয়ে নিয়ে যায়। মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিন রাতে তার বাড়ির সামনে রাস্তার উপর মুখ বাদা অবস্থায় পেলে দিয়ে যান বলে ফেনী প্রেসক্লাবে এসে বক্তব্যর মাধ্যমে সাংবাদিকদের জানান এই ভুক্তভোগী।

এ দিকে ছনুয়া ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান ও অভিযুক্ত নৌকার প্রার্থী করিমুল্লাহ জানান, তিনি প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর বাড়িতে হামলা করেননি। বরং হামলার ঘটনা শুনে তিনি বিক্ষুব্দ জনতাকে শান্ত করতে ঘটনা স্থলে উপস্থিত হন। ফেসবুক লাইভে এসে যুবলীগ নেতা আবু তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন কুৎসা প্রচার করায় স্থানীয় ভোটাররা ক্ষুব্দ হয়ে হামলা করেছে বলে দাবী করেন অভিযুক্ত করিমুল্লাহ।

ফেনী মডেল থানার ওসি মো. নাজিম উদ্দিন হামলার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।তবে এখনো কোন লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য: আগামী ৫ জানুয়ারী পঞ্চম ধাপে ফেনী সদর উপজেলার ১২টি ইউপিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে অংশ নিতে ফেনী সদর উপজেলার ছনুয়ায় ইউপিতে নৌকা মনোনীত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান করিমুল্লাহসহ ৪ জন মনোনয়নপত্র জমা দেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুক পেজ
ব্রেকিং নিউজ