রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:৪২ অপরাহ্ন

ভোলা লালমোহনের হাসপাতাল টু ডিজিট পার্ক সড়কে বেড়ে উঠেছে ছিঁচকে চোরের উৎপাত

 

মোঃ ছাইফুল ইসলাম-(জিহাদ), নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

ভোলার লালমোহনের হাসপাতাল টু ডিজিটাল পার্ক সড়কে বেড়ে চলছে ছিঁচকে চোরের উৎপাত। সুযোগ পেলেই বিভিন্ন বাসাবাড়ী থেকে প্রয়োজনীয় সামগ্রী সহ গাড়ি থেকে ব্যাটারি সহ গাড়ির মালামাল চুরি করছে অজ্ঞাতনামা চোরচক্র। এতে এলাকাবাসির মধ্যে ফের চোর আতংক বাড়ছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। তবে এসব ছিঁচকে চুরির ঘটনায় ভুক্তভোগীরা থানায় অভিযোগ না করায়, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দৃষ্টিগোচর হচ্ছে না এসব চুরির ঘটনা।

সম্প্রতি পৌর ৬নং ওয়ার্ড হাসপাতাল সংলগ্নের মৃত আলহাজ্ব মোঃ হোসেন মাস্টার এর ছেলে আলহাজ্ব শাহাদাত হোসেন শাহাবুদ্দিন মিয়া লালমোহন থানায় একটি অভিযোগ করে বলেন, আমি ঠিকাদারি ব্যবসা করি উক্ত ঠিকাদারি কাজের জন্য মক্কা ট্রেডার্স নামক আমার একটি ট্রাফি গাড়ি আছে যাহা ছয় চাকা বিশিষ্ট যাহার গাড়ির নাম্বার- 45D1, ইঞ্জিন নাম্বার- S325J63683, চেসিস নং- MEA5E0E7YJ1198174 প্রতিদিনের ন্যায় সারাদিন মালামাল বহন করে (২০ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার) সন্ধ্যার সময় পৌরসভা ৬নং ওয়ার্ড হাসপাতাল টু ডিজিটাল পার্ক কলেজ পাড়া সড়ক আমার বাড়ির সামনে রাস্তার উপর গাড়ি রাখে ড্রাইভার। ড্রাইভার সকালবেলা (২১ জানুয়ারী শুক্রবার) সকাল অনুমানিক ৬ ঘটিকার সময় আমার ভাগিনা তুহিন গাড়ির নিকট আসিয়া দেখেন গাড়ির লক কাটিয়া বোডির মধ্যে রাখা ১২ ভোল্টের ব্যাটারি নিয়ে অজ্ঞাতনামা চোররা। যাহার মূল্য ১২০০০ হাজার টাকা। পড়ে আমি গাড়ির ড্রাইভার সহ নিকটিয় প্রিয় স্বজন এবং স্থানীয় লোকজন মিলিয়া গাড়ির ব্যাটারি খোঁজ করি কিন্তু তার সন্ধান পাইনি।

এলাকাবাসীরা জানান, বেশকিছুদিন ধরে এ এলাকায় চোরদের উপদ্রব ও বখাটে যুবকদের উৎপাত বেড়ে গেছে। ফলে সুযোগ পেলেই নানা অপরাধ প্রবণতা ঘটাচ্ছে অপরাধী চক্র। এতে বাসাবাড়ী, দোকানপাট খালি রেখে স্বস্তিতে থাকতে পারছেন না এলাকাবাসী। এতে জনমনে চোর আতংক বাড়ছে। এসব ঘটনায় পুলিশকে অবগত না করার কারণে নেয়া হচ্ছে না প্রয়োজনীয় আইনী পদক্ষেপ। অপরাধ প্রবণতা রোধে পুলিশী টহল বৃদ্ধিসহ এলাকায় নিরাপত্তা ও শান্তি শৃংখলা বজায় রাখার দাবী জানিয়েছেন পৌরসভা ৬নং ওয়ার্ড হাসপাতাল টু ডিজিটাল পার্ক কলেজ পাড়া সহ ওই এলাকার বাসিন্দারা। তারা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। শান্তিতে বসবাস করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে জেলা পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.


ফেসবুক পেজ
ব্রেকিং নিউজ