রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:৩২ অপরাহ্ন

সুবর্ণচরে ভোট না দেওয়ায় একটি পরিবারকে কাঁটা দিয়ে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন পরাজিত মেম্বারপ্রার্থী।

আহসান হাবীব স্টাফ রিপোর্টারঃ-

ভোট না দেওয়ায় একটি পরিবারকে অবরুদ্ধ করে রাখার অভিযোগ উঠেছে পরাজিত মেম্বার প্রার্থীর বিরুদ্ধে।

গত ১০ ফেব্রুয়ারী (বৃহস্পতিবার) অনুষ্ঠিত হলো নোয়াখালী সুবর্ণচর উপজেলার ১নং চরজব্বর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন, নির্বাচনে হেরে যান ৫নং ওয়ার্ডের মেম্বার প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ (তালা প্রতিক)। এরপরই নিজ বাড়ির আমিন উল্যার ঘরের সামনে কাঁটা দিয়ে ও চলাচলের রাস্তা কেটে দিয়ে আমিন উল্যা ও তার পরিবারকে অবরুদ্ধ করে রাখার অভিযোগ উঠেছে ১ নং চরজব্বর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের পরাজিত মেম্বার প্রার্থী আবুল কালাম ও তার লোকজনের বিরুদ্ধে।
এতে করে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে পরিবারের লোকজনদের। ঘটনাটি সুবর্ণচর উপজেলার ১নং চরজব্বর ইউনিয়নের চরজব্বর গ্রামে ৫নং ওয়ার্ডের দপাদার বাড়িতে ১৪ ফেব্রুয়ারী (সোমবার) বিকাল ৫ ঘটিকার সময় ঘটে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী চরজব্বর গ্রামের মৃত বেচু মিয়ার ছেলে আমিন উল্যা মঙ্গলবার (১৫ ফেব্রুয়ারী) চরজব্বার থানা অফিসার ইনচার্জ জিয়াউল হক বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ১নং চরজব্বর ইউনিয়নের চরজব্বর গ্রামের আবুল কালাম আজাদ ইউপি নির্বাচনে তালা প্রতিক নিয়ে একজন মেম্বার পদপ্রার্থী ছিলেন। নির্বাচনে তিনি প্রতিপক্ষের কাছে পরাজিত হওয়ায় ভুক্তভোগী পরিবারের বিরুদ্ধে ভোট না দেওয়ার অভিযোগে তোলেন। সোমবার( ১৪ ফেব্রুয়ারী) বিকাল ৫ ঘটিকার সময় ভুক্তভোগী পরিবারের ঘরের সামনে কাঁটা দিয়ে এবং বাড়ির একমাত্র চলাচলের রাস্তাটি মাটি কেটে বন্ধ করে দেওয়া হয়। এতে পরিবারটির কোনো সদস্য জরুরি কাজে ঘর থেকে বের হতে পারছে না।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী আমিন উল্যা বলেন, আমি সক্রিয়ভাবে চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভোট করছি, কোন মেম্বার প্রার্থীর ভোট করিনি, আমার বাড়ির আবুল কালাম তালা মার্কা নিয়ে মেম্বার প্রার্থী ছিলেন, আমি তাকে ভোট দিয়েছি, সে আমাকে সন্দেহ করে আমি নাকি তাকে ভোট দেয়নি, এজন্য সোমবার বিকাল ৫ঘটিকার সময় তার ছেলেসহ ১০/১২ জন সন্ত্রাসী এনে আমার ঘরে হামলা করে, ঘরের পাশে কাঁটা দিয়ে আমার পরিবারকে অবরুদ্ধ করে রাখে, এবং আমার ১৫ বছরের চলাচলের একমাত্র রাস্তাটি কেটে ফেলে, আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে, আমাকে হুমকি ধামকি প্রদান করে, আমার জান মালের কোন নিরাপত্তা নেই, এই ঘটনার সুষ্ঠ বিচার চেয়ে আমি চরজব্বার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছি।

অভিযুক্ত আবুল কালাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমিন উল্যার ছেলে আমার ছেলের ফার্মেসী দোকানে ডুকে আমার ছেলের চোখ উপড়ে ফেলার হুমকি দেয়, এই কারণে আমার ছেলে ক্ষোভের বষে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে, আমি আমার ছেলেকে শাসন করেছি, বিষয়টি নিয়ে উভয়ে বসে দ্রুত মিমাংসা করে ফেলবো।

চরজব্বার থানার এস আই আবুল বাসার অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নির্বাচনে ভোট না দেওয়ায় একটি পরিবারকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে এমন অভিযোগ পেয়েছি। ইতোমধ্যে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি, উভয় পক্ষ সমঝোতায় বসতে রাজি হয়েছে, সমঝোতা না হলে পুলিশ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.


ফেসবুক পেজ
ব্রেকিং নিউজ